Kashmir

Kashmir

ভ্রমনের স্থানঃ কাশ্মীর, পাহেলগাম, গুলমার্গ, সনমার্গ, শ্রীনগর, জম্মু।
ইভেন্ট ফিঃ ২৯,৫০০ টাকা জনপ্রতি।
কাপল ও শিশু পলিসিঃ আলোচনা সাপেক্ষে।
কাশ্মীর নিয়ে একটু বলিঃ বর্তমান জম্মু ও কাশ্মীর ভূখণ্ডটি অতীতে কাশ্মীর ও জম্মু দেশীয় রাজ্যের অধীনস্থ ছিল। এই রাজ্যের শাসকেরা ঐতিহাসিক বৃহত্তর কাশ্মীর অঞ্চল শাসন করতেন। এখন কাশ্মীর অঞ্চলের মালিকানা নিয়ে ভারত, পাকিস্তান ও গণচীনের মধ্যে বিবাদ রয়েছে। এই বিবাদের জেরে রাষ্ট্রসংঘ ও অন্যান্য কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থায় জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যটি “ভারত-অধিকৃত কাশ্মীর” বা “ভারত-শাসিত কাশ্মীর” নামে পরিচিত।অন্যদিকে পাকিস্তানের শাসনাধীনে থাকা অংশটি ভারতে “পাকিস্তান-অধিকৃত কাশ্মীর” এবং পাকিস্তানে “আজাদ জম্মু ও কাশ্মীর” নামে পরিচিত।
ভ্রমনের সময়কালঃ ১২ দিন।
আমাদের আনুমানিক প্ল্যানঃ
দিন ০- রাতের বাসে/ ট্রেনে ঢাকা ত্যাগ কলকাতার উদ্দেশে।
দিন ১- ইমিগ্রেশনের কাজ শেষ করে দুপুর বা বিকেলের মধ্যে কলকাতা, হোটেলে চেকইন করে ফ্রি টাইম সবার জন্য, কলকাতায় রাত্রি যাপন।
দিন ২- মঙ্গলবারঃ সকালে হোটেল চেক আউট করে নাস্তা সেরে সোজা হাওড়া ট্রেন স্টেশনে, ১১.৩০ এর ট্রেনে ৩ টায়ার এসি স্লিপারে করে জম্মুর উদ্দেশে কলকাতা ত্যাগ।
দিন ৩- সারাদিন রাত ট্রেন জার্নি, ট্রেনে থেকে চারিপাশের প্রাকৃতিক পরিবেশ দেখব, ট্রেনের বিছানায় ঘুমাব ।
দিন ৪- সকাল ৮.৩০ এ জম্মু ট্রেন স্টেশন নেমে নাস্তা করেই রিজার্ভ গাড়িতে শ্রীনগর এর উদ্দেশে রউনা, যেতে যেতে চার পাশের অসাধারণ সব প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ্। বিকেলের মধ্যে শ্রীনগর গিয়ে হোটেলে চেক ইন এবং বিশ্রাম ও রাত্রিযাপন।
দিন ৫- এই দিন আমরা রিজার্ভ গাড়িতে করে ঘুরে দেখব শ্রীনগর শহরের ভিতর ডাল লেক, শালিমার বাগ, চাশমেশাহী বাগ, পারিমহল,হযরত বাল দরগাহ, Srinagar City. এইসব কিছু দেখে আমরা সন্ধার মধ্যেই চলে আসব আমদের হোটেল এ সন্ধার পর থেকে দেখব বোঁট হাউজের অসাধারন ভিউ।
দিন ৬- সারাদিন রিজার্ভ গাড়িতে ঘুরে দেখব পাহেলগাম।. এখানে অনেকগুলো স্পট রয়েছে, তাদের মধ্যে আরু ভ্যালি, বেতাব ভ্যালি, চান্দেনওয়ারি, লিদারওয়াত রিভার, মিনি সুইজারল্যান্ড খ্যাত বাইসারান,

দিন ৭- সারাদিন ঘুরে দেখব গুলমারগ। সারা বছর বরফ দেখার জন্য গুলমার্গ বিখ্যাত, যা শ্রীনগর থেকে প্রায় ৫২ কিমি দূরে অবস্থিত। যেতে ও ফিরে আসতে সারা দিন লেগে যায়, মানে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫ টা। ওখানে দুই ধাপের কেবল কার বা রোপওয়ে আছে। নভেম্বর থেকে এপ্রিলের মধ্যে গেলে একধাপ উঠলেই বরফ দেখা যায়, ।
দিন ৮-. শ্রীনগর থেকে ৪২ কিমি দূরে অবস্থিত, দ্রাস, কারগিল, লে লাদাখের পথে। পথে পড়বে অপরূপ সিন্ধু নদ।অনেক সুন্দর উপত্যকা ও ঝর্ণা দেখা যায় সেখানে। সোনামার্গে ঘোরার জায়গার মধ্যে জাজিলা পাস, থাজিওয়াস গ্লেসিয়ার (সোনামার্গ থেকে থাজিওয়াস হিমবাহ গঙ্গাবাল লেক, গাদসার লেক, ভিসান্তার লেক, সাসতার লেক।‬

দিন ৯- সকাল ৬ টায় হোটেল চেক আউট করে কলকাতার ট্রেন ধরার জন্য রউনা হব। এবং সন্ধ্যা ৬.৩০ এর ট্রেনে করে আবারও সেই আরামদায়ক ৩ টায়ার এসি কেবিনে করে কলকাতার উদ্দেশে ট্রেনে করে রউনা।
দিন ১০- ট্রেনেই সারা দিন ও রাত ঘুম, গল্প, আড্ডা।
দিন ১১- বিকাল ৪ টায় কলকাতা রেল স্টেশনে নেমে হোটেলে চেক ইন এবং বিকেলে ফ্রি টাইমে সবার বেক্তিগত কেনাকাটা অথবা ঘোরাফেরা। রাতে কলকাতা রাত্রিযাপন।
দিন ১২- সকালের নাস্তার পরে হোটেল থেকে চেকআউট করে ঢাকার উদ্দেশে ট্রেন অথবা বাসে করে রউনা হওয়া।
দিন ১৩- সন্ধার পরে অথবা রাতের মধ্যেই ঢাকায় পৌঁছানো এবং আমাদের স্বপ্নের কাশ্মীর ট্যুর এর শুভ সমাপ্তি ইনশাআল্লাহ।

**যা যা থাকবে **
• ঢাকা – কলকাতা- ঢাকা এসি বাস অথবা এসি ট্রেনে করে যাতায়াত।
• কলকাতা- জম্মু- কলকাতা ট্রেনে ৩ টায়ার এসি স্লিপারে যাতায়াত।
• প্রতিদিন রিজার্ভ ট্যুরিস্ট বাসে করে স্পট ভ্রমন
• প্রতিদিন সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার, রাতের খাবার
• সকল স্পটের এন্ট্রি ফি ( যেকোনো প্রকার রাইড এবং স্পোর্টস এক্টিভিটি বেতিত )
• সকল প্রকার পারমিশনের খরচ এবং গ্রুপ টি শার্ট।

**যা যা থাকছে না**
• ভিসা ও ট্রাভেল ট্যাক্স এর খরচ
• বর্ডারের খরচ
• বেক্তিগত খরচ। যেমন যেকোনো প্রকার রাইড এবং স্পোর্টস এক্টিভিটি, যেকোনো প্রকার জরিমানা এবং উল্লেখিত সুবিধার বাইরে কোন কিছু।
**অংশগ্রহনকারী সদস্য সংখ্যা**
• ৮/১২ জন (আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে কনফার্মেশন প্রক্রিয়া চলবে)
মৌখিক কনফার্মেশন কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

Leave a Reply